সাইবার ক্রাইম কি? Cyber crime Bangla

Hey What’s up people?  কি অবস্থা সবার? আশা করি সবাই ঠিকঠাক। আমিও ঠিকঠাক। তো আজ আমরা কথা বলবো সাইবার ক্রাইম নিয়ে? এই যেমন ধরো – সাইবার ক্রাইম কি? কীভাবে হয়? কত প্রকার? হুম নেট দুনিয়ায় আমরা নিজেদের অজান্তে অনেক সময় সাইবার ক্রাইমে জড়িয়ে পড়েছি।তো সে সব বিষয় নিয়ে আজকের ব্লগে আমরা ডিসকাস করব। তো তুমি যদি সাইবার ক্রাইম নিয়ে ইন্টারেস্টেড থাকো, মানে সাইবার ক্রাইম কি? কেন হয় কীভাবে? খুঁটিনাটি ইত্যাদি জানার ইচ্ছা থাকে। আজকের লেখাটি তোমার জন্য।

সাইবার ক্রাইম কি?

এখন ইন্টারনেটের যুগ। মানুষ সব কিছুই ইন্টারনেটে করছে। ইন্টারনেটে মানুষ যেমন ভালো কিছু করছে বা ভাল আজকের এই ডিজিটাল পৃথিবীতে সভ্য মানুষ যেমন রয়েছে, তেমনি রয়েছেনি অসভ্য মানুষও। ইন্টারনেটের বদৌলতে এই পৃথিবী এখন অনেক উন্নত। ইন্টারনেটের মাধ্যমে পৃথিবী এখন চলে এসেছে হাতের মুঠোয়। এই ইন্টারনেটকে কাজে লাগিয়ে, একদিকে পৃথিবী যেমন উন্নতির শেখরে  রয়েছে। তেমনই এই ইন্টারনেটের অপব্যবহার করে একদল মানুষ প্রতিনিয়ত করে চলেছে নানা ধরনের অপরাধ।

আর এই ইন্টারনেটকে ব্যবহার করে, ঘটিত সব ধরনের অপরাধ সাইবার ক্রাইমের অন্তর্ভুক্ত। সাইবার ক্রাইম হচ্ছে এমন এক ধরনের অপরাধ যেখানে অপরাধী মূলত ইন্টারনেট ব্যবহার করে, কম্পিউটার অথবা মোবাইল ফোন অথবা এমন সব ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসের মাধ্যমে অপরাধ করে থাকে।

তাহলে আশা করি বুঝতে পারছেন সাইবার ক্রাইম কি । এক কথায় ইন্টারনেট ব্যাবহার করে যে কোন ধরণের অনৈতিক বা অপরাধমূলক ক্রাইম কে ই সাইবারক্রাইম বলে। তাহলে এবার চলুন জেনে নিই সাইবারক্রাইম কত প্রকার ও কি কি?

সাইবার ক্রাইম কত প্রকার কি কি?

সাইবারক্রাইমের নির্দিষ্ট কোন প্রকার নাই। এটা অনেক প্রকার হতে পারে। নিচে কিছু সাইবারক্রাইম সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

Hacking

ইন্টারনেটে সংগঠিত সবথেকে কমন অপরাধগুলোর ভেতরে সাইবার হ্যাকিং একটি। হ্যাকিং নিয়ে নিশ্চয় আমরা কম বেশি সবাই জানি। যদি না জেনে থাকেন প্লিজ কমেন্ট করে জানাবে। আমি চেষ্টা করবো হ্যাকিং নিয়ে লেখার জন্য। মূলত হ্যাকার রা ইন্টারনেট ব্যাবহার করে মানুষের ব্যাক্তিগত তথ্য চুরি করে । এছাড়া তারা অনেক সময় আমাদের ব্যাবহার করা ডিভাইস ও অ্যাকসেস নিতে পারে। যেটা কিনা মারাত্মক অপরাধ। কেননা আমি কিংবা আপনি আমরা কেউ চাইবো না যে – কেউ আমাদের personal তথ্য দেখুক বা পড়ুক। তাই না? আর তাই হ্যাকিং একটি মারাত্মক সাইবার অপরাধ ।

Smuggling

এই ইন্টারনেটকে ব্যবহার করে মানুষ যেমন নানা ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছে। ঠিক তেমনই এক শ্রেণির অসাধু লোক এই ইন্টারনেটকে ব্যবহার করে মাদকের মতো বিষাক্ত পানীয়, পদার্থ ছড়িয়ে দিচ্ছে সমাজের প্রতিটি কোণায় কোণায়। আর তাই এটাও একধরনের সাইবার ক্রাইমের অন্তর্ভুক্ত। 

সোশ্যাল হ্যারাসমেন্ট

সাসাইবার ক্রাইমের আরেকটি বড় অংশ হচ্ছে সোশ্যাল হ্যারাসমেন্ট। আর এই সোশ্যাল হ্যারাসমেন্টের সবথেকে বড় শিকার হচ্ছে নারীরা। শুধুমাত্র যে নারীরা বিষয়টি এমন নয়।তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই নারীরাই এই হ্যারাসমেন্টের শিকার । আর এই সোশ্যাল হ্যারাসমেন্ট কিন্তু একধরনের সাইবার ক্রাইম। আমাদের দেশে অনেক মেয়েরাই এই সোশ্যাল হ্যারাসমেন্টের শিকার।

এবং ইন্টারনেট ব্যবহার করে প্রতিনিয়ত একদল মানুষ এসব কর্মকাণ্ড করে চলেছে। আর এমন সব সাইবারক্রাইম এর কারণে, প্রতিনিয়ত ঘটে চলেছে নানা ধরনের ইনসিডেন্স। আর তাই আমাদের সকলেরই অতীত সাইবার ক্রাইম নিয়ে সচেতন হওয়া।এবং সকলকে এ বিষয়ে সচেতন করা । তাহলে কিছুটা হলেও এমন সব জঘন্য সাইবার ক্রাইম প্রবণতা কমে যাবে।

কম্পিউটার ভাইরাস:

কম্পিউটার ভাইরাস তৈরি এবং সেগুলা দিয়ে মানুষের ক্ষতি করাও এক প্রকার সাইবার ক্রাইম। যেহেতু এই সব ভাইরাস গুলা মানুষের নানা ধরনের তথ্য চুরি করছে এবং নানা ভাবে মানুষ কে ভোগান্তিতে ফেলছে তাই যারা এই ধরনের কর্মকাণ্ড করছে সবাই সাইবার ক্রাইমের সাথে জড়িত। আশা করি বুঝতে পেরছেন। আপনি যদি না জেনে থাকেন কম্পিউটার ভাইরাস কি ? বা আরো ভালভাবে জানতে নিচের লেখাটি পড়ে ফেলতে পারেন।

কম্পিউটার ভাইরাস কি?

তাহলে বন্ধুরা আশা করি আমরা সাইবার ক্রাইম কি?। সাইবার ক্রাইম কাকে বলে। সাইবারক্রাইম কত প্রকার কি কি। সে সম্পর্কে সবকিছু এই আর্টিকেলে জানতে পারলাম ।আশা করি আপনাদের মনে আর কোন দ্বিধা নেই। ধন্যবাদ ❤

3.7/5 - (4 votes)

Leave a Comment